জিমেইলের ৭টি গোপন আকর্ষণীয় ফিচার জেনে নিন

কখনো শুনেছেন, একটা নির্দিষ্ট সময়ে আপনার মেইল কেউ না পড়লে তা আবার আপনার কাছে ফেরত আনা সম্ভব? কিংবা মেইল পাঠানোর পর কখনো কি মনে হয়েছে, মেইলে একটু ভুল হয়ে গেছে, সেটা ফেরত এনে সংশোধন করা দরকার? অধিকাংশ জিমেইল ব্যবহারকারীই এ ধরনের বেশকিছু আকর্ষণীয় ফিচার সম্বন্ধে জানেন না। কিন্তু এগুলো ব্যবহার করলে যেমন আপনার মেইল ব্যবহার সহজ হয়ে উঠবে, তেমনি ঝামেলা থেকেও বাঁচতে পারবেন।

১. জিমেইল ঠিকানায় ডটের কোনো গুরুত্ব নেই
কারো জিমেইল ঠিকানায় যদি আপনি ডট দেখেন, তাহলে সে বিষয়ে কোনো গুরুত্ব না দিলেও চলবে। কারো ই-মেইল অ্যাড্রেস যদি হয় JohnDoe@Gmail.com তাহলে আপনি তার বদলে লিখতে পারেন John.Doe@Gmail.com কিংবা আরেকটু বেশি লিখতে চাইলে দিতে পারেন J.o.h.n.D.o.e.@Gmail.com. এতে আপনার ই-মেইল প্রাপকের বিষয়ে কোনো পার্থক্য হবে না।

২. মেইল ফেরত আনুন
জিমেইলের বিনামূল্যের অ্যাপ বুমেরাং ব্যবহার করে আপনি এমন একটি ই-মেইল পাঠাতে পারবেন, যা নির্দিষ্ট সময় পরে আপনার ই-মেইলে তা আবার ফেরত আসবে। এজন্য আপনি পছন্দমতো সময়ও নির্দিষ্ট করে দিতে পারবেন। এ সময়ে মেইল প্রাপক সেটি ওপেন না করলে মেইলটি আপনার কাছে ফেরত আসবে।

৩. নির্ণয় করুন আপনার মেইল কে ছড়ায়
আপনি যদি মেইলের ভেতর ‘+’ চিহ্ন লেখেন তাহলে সেই মেইলটি ছড়াল কিনা তা নির্ণয় করতে পারবেন। ধরুন, আপনার একটি শপিং ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট করতে হবে। কিন্তু আপনি সেই সাইটটির মাধ্যমে আপনার মেইল স্প্যামারদের কাছে ছড়ায় কি না, তা দেখতে চান, তাহলে মেইলটিতে ‘+’ চিহ্ন ব্যবহার করতে পারেন। যদি আপনার ইমেইলের অ্যাড্রেস হয় JohnDoe@Gmail.com তাহলে সেই শপিং ওয়েবসাইটে দেওয়া ইমেইল অ্যাড্রেসে আপনি লিখতে পারেন JohnDoe+Shopping@Gmail.com. এরপরও আপনি তাদের মেইল পাবেন, তবে সেখানে আপনার অ্যাড্রেস দেখা যাবে JohnDoe+Shopping@Gmail.com. আর আপনি যদি কোনো স্প্যাম মেইলে আপনার ইমেইল ঠিকানা পান JohnDoe+Shopping@Gmail.com তাহলে বুঝবেন আপনার ইমেইল ঠিকানাটি ছড়িয়েছে সেই শপিং ওয়েবসাইটটি।

৪. ডেস্কটপেই ইমেইলের নোটিফিকেশন
আপনি যদি অনেকবার ইমেইল চেক করেন তাহলে ডেস্কটপেই ইমেইল নোটিফিকেশন গ্রহণ করুন। এতে যখনই কোনো ই-মেইল আসবে তখনই আপনি তা জানতে পারবেন। এছাড়া এর মাধ্যমে নির্দিষ্ট কোনো লেবেলের ইমেইল ডেস্কটপ নোটিফিকেশন পাওয়াও সম্ভব। এজন্য আপনার ইনবক্সের গিয়ার আইকনে ক্লিক করুন। এরপর সেটিংস-এ ক্লিক করুন। এরপর স্ক্রল করে একেবারে নিচের ডেস্কটপ নোটিফিকেশন-এ ক্লিক করুন।

৫. একসঙ্গে অনেকগুলো ই-মেইল ডিলিট করুন
আপনার ই-মেইল ইনবক্সের ভেতর প্রতিটি ইমেইলেরই একটি করে নম্বর আছে। এগুলো ব্যবহার করে একসঙ্গে অনেকগুলো মেইল প্রদর্শন ও ডিলিট করা সম্ভব। যেমন ১ থেকে ২৫ নম্বর মেইল ডিলিট করতে চাইলে শুধু সেগুলোই একটি পেজে প্রদর্শন করুন। তারপর সিলেক্ট অল-এ ক্লিক করে সবগুলো সিলেক্ট করুন। এরপর প্রয়োজনে সেগুলো ট্র্যাশক্যানে ক্লিক করলেই সেগুলো দূর হয়ে যাবে আপনার চোখের সামনে থেকে।

৬. মেইল পাঠানোর পরে তা ‘আনডু’ করা
গুরুত্বপূর্ণ একটা মেইল পাঠানোর পর আপনি যদি বুঝতে পারেন, যে সেটি ভুল মানুষের কাছে পাঠিয়েছেন, তাহলে তার মতো বিব্রতকর পরিস্থিতি আর হয় না। তবে এ থেকেও বাঁচতে পারেন, যদি আপনার ‘আনডু সেন্ড’ অপশনটি চালু করা থাকে। এজন্য ‘সেটিংস’ থেকে ‘ল্যাবস’-এ ক্লিক করতে হবে। এরপর সেখানে স্ক্রল করে নিচে নামলে পেয়ে যাবেন ‘আনডু সেন্ড’ অপশনটি। এটি ‘এনাবল’ করার পর ‘সেভ চেঞ্জেস’-এ ক্লিক করতে ভুলবেন না।

৭. ইনবক্স গুছিয়ে রাখতে ব্যবহার করুন ভিন্ন রঙের স্টার
জিমেইল ইনবক্সে যদি অনেক ধরনের মেইল থাকে আর সেগুলো আপনি গুছিয়ে রাখতে চান, তাহলে এভাবে পরিবর্তন করুন। প্রথমেই যান গিয়ার চিহ্নতে। এরপর ‘জেনারেল’ এবং স্ক্রল ডাউন করে ‘স্টারস’ খুঁজে বের করুন। এখান থেকে আপনি নিতে পারবেন ছয়টি ভিন্ন রঙের স্টার ও ছয়টি আলাদা সিম্বল।

উৎস: কালের কণ্ঠ

আপনার মতামত বা প্রশ্ন লিখুন।

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s